1. alauddin.reporter24@gmail.com : Alauddin Sikder : Alauddin Sikder
  2. ukhiyasomoy@gmail.com : Ukhiyasomoy : Monibul Alam Rahat
  3. monibulalamrahat@gmail.com : Riduan Sohag : Riduan Sohag
  4. sanaullahalhady05@gmail.com : shohan pervez : shohan pervez
শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১১:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ভাষা শহীদদের প্রতি এবি পার্টি উখিয়ার শ্রদ্ধা নিবেদন বান্দরবানে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা নিহত এড. গোলাম ফারুক খান কায়সার এর শ্বশুরের ইন্তেকালে এবি পার্টি উখিয়া উপজেলার শোক ইসলামী আন্দোলন গণমানুষের মুক্তির লক্ষ্যে রাজনীতি করে- গাজী আতাউর রহমান উখিয়ায় এবি পার্টি কতৃক ছাত্রদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মরিচ্যায় পালং ডিজিটাল মেডিকেল সেন্টারে নিয়মিত রোগী দেখছেন অভিজ্ঞ চিকিৎসকরা জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত ১, গুরুতর আহত ২ উখিয়ায় প্রশাসনের উচ্ছেদ অভিযান: ৩৯ হাজার টাকা অর্থদণ্ড উখিয়ায় বাজার মনিটরিংয়ে ৮০কেজি নষ্ট মিষ্টি ধ্বংস! জালিয়াপালং স্পোর্টস একাডেমি’কে হারিয়ে সেমিফাইনালে ‘পালং স্পোর্টিং ক্লাব’

একযাত্রার ভিন্ন ফল: মুহাম্মদ আইয়ুব আলী

  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, ১৪ মে, ২০২০
  • ১৪১

✍মুহাম্মদ আইয়ুব আলী

আজকের গল্পটা আমার হজুরের কাজ থেক শুনেছি। এক সুন্দরী মেয়ে। তার বিয়ে হয় যে বংশে সে বংশের ছেলেদের একটা বদনাম ছিল তারা বউদের তেমন কদর করেনা। তাই বিয়ের পর মেয়েটা দুশ্চিন্তায় পড়ে গেল। মেয়েটি তার স্বামীকে পরীক্ষা করার সুযোগ খুজতেছিল কিন্তু ছেলেটি বউকে আসলেই পাগলের মত ভালোবাসত।ছেলেটা একদিন হাটে যাওয়ার সময় জিজ্ঞেস করল, বউয়ের কিছু লাগবে কিনা,বউ সুযোগে বলল বাজারে গিয়ে আমার জন্য বড় দেখে একটা বরফ নিয়ে আসবে। তখন ছিল শীত কাল। ছেলেটি যখন দোকানে গিয়ে বরফ চাইল তখন দোকান মালিক আশ্চর্য হয়ে তার বাড়ি কোথায় জিজ্ঞেস করল, বলল এমন শীতে পাগল ছাড়া কেউ বরফ কিনে? তখন ছেলেটা বলল ভাই আমি আসলে পাগল, তবে বউ পাগল। দোকানদার বড় একটা বরফের টুকরো দিলে সে পরনের লুঙ্গি মোচড়িয়ে বরফটি নিলেন। বরফ নিয়ে সে অন্যন বাজার শেষ করে বাড়ি ফিরলেন। বাড়ি যাওয়ার পর বউ জিজ্ঞেস করল বরফ আনছে কিনা, সে বলল আনছি কিন্তু বউকে বরফ দেয়ার জন্য যখন লুঙ্গির মোচড় খুললেন তখন দেখলেন বরফ গলে গেছে। তখন ছেলেটা ইন্না-লিল্লাহ বলে উঠলেন কারণ বরফের ঠান্ডায় ছেলেটার শরীর বেছুত হয়ে যায় সে বুঝতে পারেনি বরফ গলে গেছে। এদিকে বউ তা দেখে আলহামদুলিল্লাহ বলে উঠলো কারণ বউ প্রমাণ পেয়েছে জামাই তাকে ভালবাসে।

অর্থনীতিতে করোনাভাইরাসের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় নতুন চারটিসহ মোট পাঁচটি প্যাকেজে ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এইসঙ্গে দরিদ্র মানুষজনের জন্য বিনামূল্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণসহ সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রমের আওতা বাড়ানোর কথা বলেছেন। দেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রম বস্তুতপক্ষে অচল হয়ে পড়েছে। এমন কোনো ক্ষেত্র নেই, যাতে করোনার প্রভাব পড়েনি। প্রভাবের মাত্রা ও পরিধি ক্রমশ বাড়ছে। এমতাবস্থায়, প্রভাব মোকাবেলা করে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে এরকম প্যাকেজের প্রয়োজন ছিল অপরিহার্য। অনুদান বা দান হিসাবে নয়, এই টাকা দেয়া হবে শর্তসাপেক্ষে ঋণ হিসাবে।
“এটা প্রণোদনা মানে পরিস্কারভাবে বলা হয়েছে, এটা লোন হিসাবে দেয়া হবে রপ্তানি শিল্পকে। দুই শতাংশ হারের সুদে এই ঋণ দেয়া হবে।এবং ছয় মাস পর থেকে একটা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এই টাকা শোধ করতে হবে।””এটা দান নয়, পুরোপুরিই লোন বা ঋণ। রপ্তানি খাতের মালিকরা এই টাকা পাবেন এবং এটা সুনির্দিষ্ট করেই বলা হয়েছে যে, এই টাকা শ্রমিকের বেতনের জন্যই ব্যবহার করতে হবে।”

কিন্তু আমাদের জনসাধারণ ৭২ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনার কথা শুনে মহাখুশি। জনে জনে হিসাব করে ফেলেছেন। ৭২ হাজার ৭৫০কোটি / ১৭ কোটি জনগন = ৪২৮০ টাকা করে পাবেন প্রতিজন।তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও নেতাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরতেছেন তাদের প্রনোদনার টাকার জন্য, বলতেছেন ভাই আমাদের টাকাগুলো কখন পাব। অনেকে আবার অফার দিচ্ছে ভাই টাকা পেলে আপনাকে হাজার খানেক দেব। এদিকে জনপ্রতিনিধিরা খুজ নিয়ে জানতে পারে প্রণোদনার টাকা শিল্পপতিদের জন্য। তখন জনপ্রতিনিধিরা জনসাধারণকে বুঝিয়ে বলেন প্রণোদনার টাকা আপনাদের জন্য না এ টাকা শিল্প মালিকের জন্য, শুনে জনগন মাথায় হাত দিয়ে বলে ইন্না-লিল্লাহ। এতে বিপত্তি ঘটেছে চকরিয়ার ঢেমুশিয়ার এক পরিবারের, তাদের সদস্য সংখ্যা ১২ জন, তাদের প্রণোদনার টাকা পাওয়ার কথা প্রায় ৫০ হাজার, সেজন্য পরিবারের কর্তা অলরেডি ৪০ হাজার টাকা কর্জ করেছে।পরে যখন জানতে পারছে প্রণোদনার টাকা তারা পাচ্ছে না তখন পরিবারের সবাই মিলে ইন্না-লিল্লাহ পড়তে লাগলো ফলে প্রতিবেশীরা ও ভীত হয়ে জিজ্ঞেস করছে তাদের বাসায় কেউ মরছে কিনা। যাইহোক তাদের জন্য ইন্না-লিল্লাহ, শিল্পপতিদের জন্য আলহামদুলিল্লাহ।

রূপনগরের গল্প দিয়ে শেষ করব। রূপনগরে রুপের কোন শেষ নেই কিন্তু করোনার করালা থাবায় রুপনগর কি বাদ যায়! রূপনগরের শাসন কতৃপক্ষ তাদের গরীব পরিবারের জন্য ৫০০০ টাকা করে বরাদ্দের ঘোষণা দিলেন। রূপনগরের অধিকাংশ রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধি ছিল অসাধু ও লোভী। ৫০০০ টাকা বরাদ্দের খবরে তারা মহাখুশি। তারা সবাই মিলে পরিকল্পনা করতেছে কিভাবে ৫০০০ টাকায় ভাগ বসানো যায়। তাদের একজন বলল তালিকা যেহেতু আমরা তৈরী করব সেহেতু আমরা তালিকায় শুধু তাদের নাম তুলব যারা আমাদেরকে ২৫০০ টাকা করে দেবে।আরেকজন বলল,তাতে একটু ঝুঁকি আছে আমরা টাকা দেয়ার সময় ছবি মেরে ২৫০০ টাকা করে ফেরত নিয়ে নেব। আরেকজন বলল এভাবে না করে শুধু ১০ টা কচকচে ৫০০ টাকার নোট দিয়ে ছবি মেরে পরে সব টাকাই ফেরত নিয়া নিব,কিন্তু তাদের পরিকল্পনা কোনমতে ঠিক করতে পারতেছেনা। এদিকে জনগণ ও চিন্তিত তারা বলাবলি করতেছে, যেরকম অসাধু ও লোভী জনপ্রতিনিধি আমাদের তারা আমাদের ৫০০০ টাকার পরিবর্তে তাদের আঙুল চুষতে দেবে। এদিকে শাসন কতৃপক্ষ হঠাৎ করে জানতে পারল জনগণের উৎকন্ঠা ও জনপ্রতিনিধির অসাধু পরিকল্পনার কথা। তখন কতৃপক্ষ ডিজিটাল পদ্ধতি প্রয়োগ করে মোবাইলে টাকা প্রেরণ করার ঘোষণা দিলেন।ঘোষণা শুনে অসাধু রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিরা মাথায় হাত দিয়ে বললেন” ইন্না-লিল্লাহ”। তাদের ইন্না-লিল্লাহ বলা শুনে কেউ মারা গিয়েছে কিনা একথা জিজ্ঞেস করছে কিনা আমার জানা নেই তবে অন্যদিকে ঘোষণা শুনে জনগন ঠিকই “আলহামদুলিল্লাহ” বলেছিল।

মুহাম্মদ আইয়ুব আলী
লেকচারার, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ।
কক্সবাজার সরকারি কলেজ।



নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর...





নামাজের সময় সূচি

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ভোর ৪:২০
  • দুপুর ১২:০০
  • বিকাল ১৬:২৮
  • সন্ধ্যা ১৮:২২
  • রাত ১৯:৩৮
  • ভোর ৫:৩৫
Ukhiyasomoy©Copyright All Rights Reserved 2019
Developed By Theme Bazar